সব কিছু
facebook lakshmipur24.com
লক্ষ্মীপুর বুধবার , ১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
বাংলাদেশের আকাশে সোলার হ্যালো বা সূর্য বলয়

বাংলাদেশের আকাশে সোলার হ্যালো বা সূর্য বলয়

বাংলাদেশের আকাশে সোলার হ্যালো বা সূর্য বলয়

বাংলাদেশের অনেক জেলার আকাশে বৃহস্পতিবার (১৯ মার্চ) দুপুরে সোলার হ্যালো  বা সূর্য বলয় দেখা গেছে। লক্ষ্মীপুর জেলা থেকে বলয়টি ছিল স্পষ্ট। দেখতে বিশাল আকৃতির রংধনু বলয়। সুন্দর এই বলয় স্থানীয় লোকজনের মধ্যে কৌতূহল সৃষ্টি করে। তবে করোনা ভাইরাসের মধ্যে এ ঘটনাটিকে অনেকে পজেটিভ না নিয়ে  না  ফেসবুকে নানা রকম ভয়ভীতি তৈরি করে দিয়েছে।

অনেকে ঘর থেকে বেরিয়ে এই দৃশ্য মোবাইলের ক্যামরায় বন্দি করে সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করেছেন। অনেকে বন্ধুবান্ধবকে ফোনে, ম্যাসেঞ্জারে দেখার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। আত্মীয়-স্বজ্জনকে জানানোর সাথে সাথে কেউ কেউ অফিসের ছাদেই, কেউ কেউ জানালায় উঁকি দিয়ে দেখা শুরু করে। মোবাইল ফোনে ছবি তুলে নেওয়া ৷

করোনা ভাইরাস নিয়ে আতংকে থাকা দেশে  সৌর বলয় নিয়ে  নানা গুজব তৈরির চেষ্টা হয়েছে।

স্থানীয় একজন সাংবাদিক জানান, বাংলাদেশের মানুষ চন্দ্রগ্রহণ ও সূর্যগ্রহণের সঙ্গে পরিচিত হলেও সূর্য বলয়ের সঙ্গে তেমন একটা পরিচিত নয়। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে লক্ষ্মীপুরের মানুষের নজরে আসে  এ দৃশ্য। তবে লক্ষ্মীপুরসহ আরও কয়েক জায়গায় এ দৃশ্য দেখা গেছে।

করোনা ভাইরাস আতংকে থাকা  নারী-পুরুষ ও শিশুরা ঘর থেকে বেরিয়ে দীর্ঘক্ষণ এই দৃশ্য উপভোগ করে। এ নিয়ে শুরু হয় নানা জল্পনা-কল্পনা। অনেকেই ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দিয়ে নিজেদের নানা মতামত ব্যক্ত করেন।

এদিকে জানা যায়, বাংলাদেশে বিগত ২০১৮ সালের জুলাই মাসে উত্তরাঞ্চলে, ২০১৭ এবং ২০১৬ সালেও বিভিন্ন জেলায় সোলার হ্যালো দেখা যায়। তখন এ নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদও প্রকাশিত হয়।

কিন্ত সোলার হ্যালো কেন তৈরি হয় ? তা জানতে প্রকৃতি ও মহাকাশ বিষয়ক ওয়েব সাইট আর্থস্কাই থেকে জানা যায়,

সূর্যের আলো বায়ুমণ্ডলের স্ট্রাটোস্ফিয়ারে পৌঁছানোর পর বরফে পড়ে প্রতিসরণ হয়। যার দৃশ্যমান রূপ এ বলয়।  এরপর ধীরে ধীরে তা মিলিয়ে যায়। এই বলয় ২২ ডিগ্রি হ্যালো (halo) নামে পরিচিত।

বিষয়টি ব্যাখ্যা করে বিজ্ঞানীরা বলেন, বায়ুমণ্ডলের স্ট্রাটোস্ফিয়ারে ছোট ছোট বরফকণা রয়েছে। সূর্যের আলো স্ট্রাটোস্ফিয়ারে পৌঁছানোর পর বরফে পড়ে তা প্রতিসরণ হয়। হ্যালো ২২ ডিগ্রি থেকে ৫০ ডিগ্রি পর্যন্ত হতে পারে। তবে ২২ ডিগ্রি হলেই এই বলয় সবচেয়ে উজ্জ্বল হয়।

বৃষ্টির ঠিক আগে বা পরে ভূপৃষ্ঠ থেকে পাঁচ-দশ কিলোমিটার উঁচুতে আকাশে যখন জমাট মেঘতৈরি হয়, তখনই এই ধরনের সূর্য-বলয় তৈরির সম্ভাবনা তৈরি হয় ৷ আসলে অনেক সময়ই মেঘে জমাট শিলার ভেতর দিয়ে আলো আসার সময় আলোর প্রতিসরণ ও বিচ্ছুরণের ফলে এই বলয় তৈরি হয়।

সেই শিলার অবস্থানের জন্যই এই বলয় তৈরি হয়। এই বলয় থাকার অর্থ ভবিষ্যতে বৃষ্টি নামার সমূহ সম্ভাবনা। তাই বলয় তৈরি হওয়ার কারণে আগামি ২৪ ঘন্টার মধ্যে বৃষ্টিরও সম্ভাবনা আছে। 

 

আবহাওয়া আরও সংবাদ

লক্ষ্মীপুরে মেঘনার অস্বাভাবিক জোয়ারে হাজার হাজার মানুষ পানি বন্দি

১৬-১৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত লক্ষ্মীপুরসহ উপকূলে অধিক জোয়ারের শঙ্কা

মধ্য সেপ্টেম্বর পর্যন্ত লক্ষ্মীপুরসহ উপকূলে অধিক জোয়ারের শঙ্কা

তীব্র জোয়ারের পানিতে কমলনগরের তিনটি সড়ক বিচ্ছিন্ন

লক্ষ্মীপুরসহ উপকূলের সকল জেলা জোয়ারে প্লাবিত

আইলার ১১ বছর, কান্না বাড়িয়ে গেল আম্পান

লক্ষ্মীপুরটোয়েন্টিফোর বাংলাদেশ সরকারের তথ্য মন্ত্রনালয়ে অনলাইন নিউজপোর্টাল প্রকাশনার নিবন্ধনের জন্য আবেদনকৃত, তারিখ: 9/12/2015  
 All Rights Reserved : Lakshmipur24 ©2012- 2024
Editor & Publisher: Sana Ullah Sanu
Ratan Plaza(3rd Floor), ChakBazar, Lakshmipur, Bangladesh.
Ph:+8801794822222, WhatsApp , email: news@lakshmipur24.com